জনপ্রিয় হচ্ছে সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ বিষয়ক কনটেন্ট

digitalsomoy

জনপ্রিয় শেয়ারিং অ্যাপ ও স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও তৈরির প্ল্যাটফর্ম লাইকি ক্রমান্বয়ে হালের তরুণদের পছন্দের তালিকার শীর্ষস্থান দখল করছে। এসব তরুণদের অনেকেই মনে করেন, ছোটো ভিডিও তৈরি দেশীয় ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি সবার মাঝে তুলে ধরার একটি অনন্য মাধ্যম।

সময়ের সাথে সাথে প্রযুক্তির পরিবর্তন হচ্ছে, যা মানুষের কনটেন্ট নির্মাণ ও তা উপভোগের ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ করছে। এরই ধারাবাহিকতায়, স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও  তৈরির প্ল্যাটফর্মগুলো সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের মাঝে জনপ্রিয় হচ্ছে; বিশেষ করে হালের তরুণদের মাঝে, যাদের অধিকাংশই লাইকি অ্যাপ ব্যবহার করে কনটেন্ট নির্মাণ ও উপভোগ করে থাকেন। বর্তমান সময়ের তরুণদের অনেকেই উদ্ভাবনী উপায়ে নিজেদের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের বহিঃপ্রকাশ করেন, একইসঙ্গে এই অ্যাপটি ব্যবহারের মাধ্যমে নিজস্ব সংস্কৃতিকে তুলে ধরার বিষয়টিকেও উৎসাহিত করছে। লাইকি’র বিভিন্ন ধরনের হ্যাশট্যাগ চ্যালেঞ্জই মানুষের মাঝে বিপুল উৎসাহ এবং সাড়া ফেলার বিষয়টিকে প্রমাণিত করে।

সবার মাঝে জনপ্রিয় ও ঐতিহ্যবাহী জিলাপিকে তুলে ধরার জন্য #জালেবিবেবি (https://likee.video/hashtag/JalebiBaby)  শীর্ষক একটি ক্যাম্পেইনের আয়োজন করে লাইকি। গত নভেম্বরের ১৭ তারিখ ক্যাম্পেইনটি চালু হওয়ার পর, লাইকটি অ্যাপ ব্যবহারকারী হালের তরুণদের মাঝে তাৎক্ষণিকভাবে ইতিবাচক সাড়া ফেলে এবং যা সোশ্যাল মিডিয়াতেওবিপুল সাড়া প্রদানে সক্ষম হয়। ক্যাম্পেইনটি চালু হওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যে ৮৮৭ জন অংশগ্রহণকারীর মাধ্যমে ১ হাজার একশ’ ১০টি ভিডিও প্ল্যাটফর্মটিতে আপলোড করা হয় এবং এখন পর্যন্ত এই ক্যাম্পেইনটির ভিডিওগুলো ফ্যান ও ফলোয়ারের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪,০০০ এবং ভিউয়ারশিপের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ মিলিয়ন। এই ক্যাম্পেইনটি’র ভিডিওগুলো এতো সাড়া ফেলেছে যে, প্রতিনিয়তই ভিডিওগুলোর ফ্যান ও ভিউয়ারশিপের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।     

এ সব তরুণরা স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও  তৈরির অ্যাপটি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশীয় সংস্কৃতির প্রতি তাদের ভালোবাসাও প্রদর্শন করছেন। ব্যবহারকারীদের দেশীয় ঐতিহ্যবাহী পোশাক পড়ে নিজস্ব সংস্কৃতির পোশাকগুলো সবার সামনে তুলে ধরতে  #জিআরডব্লিউএম (https://likee.video/hashtag/GRWM)  শীর্ষক ক্যাম্পেইনের আয়োজন করে লাইকি। এই আয়োজনটির ৭,২০০ ফ্যান এবং ২৬.৬ মিলিয়ন হ্যাশট্যাগ ভিউ লাভ করে। এই চ্যালেঞ্জটিতে আপলোডকৃত ভিডিওগুলো ৩.৪ মিলিয়ন বার ব্যবহারকারী দেখেছেন। দেশীয় ঐতিহ্যকে ধারণ করে তরুণদের অনুপ্রাণিত করতে  #বৈশাখীসাজ (https://likee.video/hashtag/BoishakhiShaj) শীর্ষক ক্যাম্পেইনের আয়োজন করে লাইকি। এই ক্যাম্পেইনটির ফলোয়ারের সংখ্যা দাঁড়ায় ৬,৭০০ এবং ভিডিওগুলোর ১৭.১ মিলিয়ন ভিউ হয়। 

ধীরে ধীরে অনেক তরুণই স্বল্প দৈর্ঘ্যের ভিডিও  নির্মাণের দিকে ধাবিত হচ্ছেন এবং তারা এই ধরনের প্ল্যাটফর্মগুলোকে অনন্য উপায়ে সংস্কৃতি কর্মকাণ্ডের সাথে সম্পৃক্ত হওয়ার মাধ্যমে হিসেবে বিবেচনা করছেন; বিশেষ করে, যারা নিজস্ব সংস্কৃতির মূল্যবোধকে লালন ও ধারণ করে থাকেন। প্রযুক্তিগত কল্যাণের মাধ্যমে ভিডিওগুলোতে বিভিন্ন সৃজনশীল ইফেক্ট যুক্ত করতে সাহায্য করছে এই প্ল্যাটফর্মগুলো; আর তাই তারা মনে করছেন, ছোট ছোট ভিডিও তৈরির মাধ্যমে তারা আরো শক্তিশালীভাবে বার্তাগুলো ছড়িয়ে দিতে পারছেন। আর এই বিষয়গুলোই তরুণ ব্যবহারকারীদের আরো বেশি করে ভিডিও নির্মাণে অনুপ্রাণিত করছে। #লাইকিঈদফ্লিপ (https://likee.video/hashtag/LikeeEidFlip) এমনই এক ধরনের ক্যাম্পেইন, যা অনেককেই ‘ফ্লিপ ট্রানজিশন’ ব্যবহার করে ঈদ উদযাপনের ঐতিহ্যগুলোকে তুলে ধরতে অনুপ্রাণিত করেছে। এই ক্যাম্পেইনটির ফ্যান ফলোয়ারের সংখ্যা দাঁড়ায় ৭,৭০০ এবং এটি ১৭.২ মিলিয়ন ভিউয়ারশিপ লাভ করে। 

লাইকি’র হেড অব অপারেশনস গিবসন ইউয়েন বলেন, “বিভিন্ন ধরনের উদ্ভাবনী হ্যাশট্যাগ চ্যালেঞ্জের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের ঐতিহ্য ও  সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ সম্পর্কে জানাতে সচেষ্ট রয়েছে লাইকি। এই ক্যাম্পেইনগুলোর মাধ্যমে আমরা দেখতে পেয়েছি, ব্যবহারকারীরা অর্থবহ কনটেন্ট  তৈরি করে তার সাথে নিজেদের খুব সহজেই সম্পৃক্ত করতে পারছেন। আর এ কারণেই এই প্ল্যাটফর্মটিতে বর্তমান সময়ের তরুণদের সম্পৃক্ততা বেড়েই চলছে বলে আমরা মনে করি।”

বর্তমান প্রজন্মের তরুণদের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশে লাইকি প্ল্যাটফর্মটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে এবং অনলাইন পরিসরে ইতিবাচকভাবে বিভিন্ন বিষয় শেখার ক্ষেত্রেও প্ল্যাটফর্মটি ইতিবাচক অবদান রাখছে। প্ল্যাটফর্মটি বিভিন্ন ক্যাটাগরির ওপর ভিত্তি করে নানান সময়ে শিক্ষামূলক কনটেন্ট তৈরির ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীদের অনুপ্রাণিত করে।