কিউএস ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‍্যাঙ্কিংয়ে টানা তৃতীয়বার স্থান পেল খুবি

digitalsomoy

যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা ও গবেষণা সংস্থা কোয়াককোয়ারেলি সায়মন্ডসের (কিউএস) পৃথিবীর শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় টানা তৃতীয়বার স্থান পেয়েছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুবি)। র‍্যাঙ্কিংয়ে ১২০১ থেকে ১৪০০ এর মধ্যে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান।

‘কিউএস ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‍্যাঙ্কিংস ২০২৫: টপ গ্লোবাল ইউনিভার্সিটিস’ শীর্ষক এই তালিকা মঙ্গলবার (০৪ জুন) রাতে বিশ্বব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর র‍্যাঙ্কিং মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠান কিউএস তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে। এবার বাংলাদেশ থেকে সরকারি ও বেসরকারি মোট ১৫টি বিশ্ববিদ্যালয় স্থান পেয়েছে।

 

এর আগে ২০২৪ সালের কিউএস ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‍্যাঙ্কিংয়ে ১৪০০+ এ ছিল খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়। গ্লোবাল র‍্যাঙ্কিংয়ের পাশাপাশি এ বছর এশিয়ান ইউনিভার্সিটি  র‍্যাঙ্কিং (৬০১-৬৫০ এর মধ্যে) এবং সাউদার্ন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি র‍্যাঙ্কিংয়েও (১৮৯) মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান অর্জন করেছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়।

কিউএস র‍্যাঙ্কিংয়ের সূচকগুলো হলো একাডেমিক রেপুটেশন, সাইটেশনস পার ফ্যাকাল্টি, অ্যাম্প্লয়মেন্ট আউটকামস, অ্যাম্প্লয়ার রেপুটেশন, ফ্যাকাল্টি-স্টুডেন্ট রেশিও, ইন্টারন্যাশনাল রিসার্চ নেটওয়ার্ক এরং সাসটেইনেবিলিটি। এতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্জন যথাক্রমে ৬.৯%, ৫.৩%, ৩.৮%, ৫%, ১০.৫%, ১৭.৮% এবং ১%।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের দি অফিস অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক ও র‍্যাঙ্কিং কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর সেহরীশ খান বলেন, বর্তমান উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন দায়িত্ব নেওয়ার পর গবেষণায় বিশেষ গুরুত্ব দেন। পাশাপাশি গবেষণার জন্য যথোপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টিতেও ব্যাপক ভূমিকা রাখেন। তার কর্মমেয়াদের অন্যতম লক্ষ্য ছিল- আন্তর্জাতিক র‍্যাঙ্কিংয়ে অবস্থান সৃষ্টি করা। ইতোমধ্যে কিউএস র‍্যাঙ্কিং, টাইমস হায়ার এডুকেশন র‍্যাঙ্কিং এবং টাইমস হায়ার এডুকেশনের ইয়াং ইউনিভার্সিটি র‍্যাঙ্কিংয়ে মর্যাদাপূর্ণ অবস্থানে উঠে এসেছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়। আগামীতে এ ধারা অব্যাহত থাকলে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য পূরণ সম্ভব হবে।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন বলেন, উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর আমার প্রথম লক্ষ্য ছিল- আন্তর্জাতিক র‍্যাঙ্কিংয়ে মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান সৃষ্টি করা। এ নিয়ে টানা তৃতীয়বার কিউএস র‍্যাঙ্কিংয়ে স্থান পেয়েছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়। তিন বছরের ব্যবধানে র‍্যাঙ্কিংয়ের অবস্থানেও এসেছে উন্নতি। এ ছাড়া টানা দুইবার টাইমস হায়ার এডুকেশন র‍্যাঙ্কিং এবং এ বছরই প্রথম টাইমস হায়ার এডুকেশনের ইয়াং ইউনিভার্সিটি র‍্যাঙ্কিংয়েও স্থান পেয়েছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়। এটি একটি অন্যরকম অনুভূতি। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় যে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে এটি তার প্রমাণ।

উল্লেখ্য, ২০০৪ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা সাময়িকী টাইমস হায়ার এডুকেশনের সঙ্গে যৌথভাবে সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের র‍্যাঙ্কিং প্রকাশ করলেও ২০১০ সালে আলাদা হয়ে যায় কিউএস। এরপর থেকে এককভাবেই র‍্যাঙ্কিং প্রকাশ করে আসছে তারা। কিউএসের প্রকাশিত সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকাকে বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য র‍্যাঙ্কিংগুলোর একটি মনে করা হয়। এই র‍্যাঙ্কিংয়ে এখন আটটি সূচকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামগ্রিক মান নিরূপণ করা হয়। প্রতিটি সূচকে ১০০ করে স্কোর থাকে। সব সূচকের যোগফলের গড়ের ভিত্তিতে সামগ্রিক স্কোর নির্ধারিত হয়।