ডেটাথন ৩.০ বিজয়ী তিন দল পেল ১০ লাখ টাকার পুরস্কার

digitalsomoy

জমকালো গালা নাইটের মাধ্যমে শেষ হয়েছে দেশের সর্ববৃহৎ ডেটা সায়েন্স প্রতিযোগিতা ডেটাথনের তৃতীয় সংস্করণের চূড়ান্ত পর্ব।

সোমবার (০৩ জুন) রাতে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিজয়ী তিন দলকে পুরস্কৃত করা হয়।

রবির এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশের শীর্ষস্থানীয় ফোরজি ও ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান রবি আজিয়াটা লিমিটেড আয়োজিত ডেটাথন ৩.০-এর চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে টিম ‘এসিআই সার্ভার ডাউন’। প্রথম রানার আপ হয়েছে ‘টিম ইয়েলো কিং’ এবং দ্বিতীয় রানার আপ হয়েছে ‘টিম বিগ ডেটা এআই ডেটা সায়েন্স’। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ী তিন দলের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

এসিআই সার্ভার ডাউন চ্যাম্পিয়ন হিসেবে পেয়েছে ৫ লাখ টাকা সমমূল্যের পুরস্কার। প্রথম রানার আপ ইয়েলো কিং ৩ লাখ এবং দ্বিতীয় রানার আপ বিগ ডাটা এআই ডাটা সায়েন্স পেয়েছে ২ লাখ টাকার পুরস্কার।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মালয়েশিয়ার হাইকমিশনার হাজনাহ মো. হাশিম, বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক তামিম ইকবাল খান। এ সময় রবি আজিয়াটা লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রাজীব শেঠিসহ সরকারি ও বেসরকারিখাতের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

ডেটাথন ৩.০ প্রতিযোগিতায় ৩ হাজার ৫০০ জনেরও বেশি প্রতিযোগী ১ হাজারের বেশি দলে বিভক্ত হয়ে অংশ নেওয়ার জন্য নিবন্ধন করেন। নানা ধাপে আয়োজিত প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে ২৩টি দলের ৯৯ জন প্রতিযোগী অংশ নেন। গত ২৪ ও ২৫ মে রবি করপোরেট অফিসে আয়োজিত ৪৮ ঘণ্টার ম্যারাথন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ডেটাথন ৩.০-এর বিজয়ী নির্ধারণ করা হয়।

ডেটাথনে অংশগ্রহণকারীরা ডেটাভিত্তিক সমস্যা সমাধান ও মেশিন লার্নিং-এ দক্ষতা প্রদর্শন করছে, যা স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক ডেটা বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হয়।

বাংলাদেশের অগ্রগামী ও সর্ববৃহৎ ডেটাথন ইভেন্ট হিসেবে ডেটাথন ৩.০ বাস্তব বিশ্বের ব্যবসায়িক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বিগ ডাটা, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) এবং মেশিন লার্নিং-এর রূপান্তরমূলক ভূমিকার ওপর আলোকপাত করেছে। এই আয়োজন ডেটা বিজ্ঞানী, ব্যবসায় বিশ্লেষক, পরিসংখ্যানবিদ, ডেটা ইঞ্জিনিয়ার, প্রোগ্রামার, গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন শিল্পখাত ও স্টার্ট আপসহ ডেটা নিয়ে কাজে উৎসাহীদের জন্য এক ধরনের আকর্ষণীয় সুযোগ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ‍ পলক বলেন, শিক্ষা, বিনোদন, খেলা প্রতিটি জায়গায় ডেটা সায়েন্টিস্ট দরকার হবে। আমরা আশা করি আমাদের মেধাবী তরুণ প্রজন্ম এক্ষেত্রে দারুণ ভূমিকা রাখবে।

তিনি আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতির সময় আমরা ডেটার ব্যবহার করেছি। আর এরই কারণে কোভিড মোকাবিলায় বিশ্বের সফল পঞ্চম দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছি।

অনুষ্ঠানে রবির প্রধান নির্বাহী (সিইও) রাজীব শেঠি বলেন, ডেটাথনে অংশগ্রহণকারীদের প্রতিভা ও উদ্ভাবনী শক্তি দেখে আমরা অত্যন্ত আশান্বিত। এই আয়োজন বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে ডেটা সায়েন্সের সম্ভাবনাকে তুলে ধরে এবং ভবিষ্যৎ মেধাবী ডেটা বিজ্ঞানীদের পৃষ্ঠপোষকতা করার ক্ষেত্রে রবির প্রতিশ্রুতিকে আরও দৃঢ় করে। ডেটাথনে পাওয়া যুগান্তকারী উপায়গুলো স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে কার্যকর ভূমিকা রাখবে-এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

রবির আয়োজনে প্রতিযোগিতাটির ‘পাওয়ারড বাই’ সহযোগী অ্যামাজন ওয়েব সিরিজ। এছাড়া প্লাটিনাম স্পন্সর হিসেবে ছিল হুয়াওয়ে বাংলাদেশ লিমিটেড ও ডিজিটাল মিডিয়া পার্টনার এডিএ বাংলাদেশ। ইন্টিগ্রেশন পার্টনার হিসেবে অ্যাকজেনটেক পিএলসি ও ক্লাউড এক্সপার্টাইজ পার্টনার হিসেবে ছিল ব্রেইন স্টেশন ২৩।