উদ্যোক্তাদের লোন জামানতবিহীন করার দাবি

digitalsomoy

আইসিটি সেক্টরে অনেক উদ্যোক্তা ভাল কাজ করছেন যাদের জামানত দিয়ে ব্যাংকের ঋণ নেওয়ার মতো অবস্থা নাই। তাদের পক্ষে ব্যাংকের ঋণ  নেওয়া সম্ভব না। তাই লোন জামানতবিহীন হতে হবে। এটাকে সহজ করার জন্য ভূমিকা রাখতে হবে এসএমই ফাউন্ডেশনের বলে মত দেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর। 

বুধবার (৫ মে) এসএমই ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় এই মতামত ব্যক্ত করেন তিনি।
 
সরকার ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজে ৪ শতাংশ সুদে আইটি উদ্যোক্তাদের আপদকালীন ঋণ পাওয়ার কথা থাকলেও অনেক সীমাবদ্ধতার কারণে উদ্যোক্তারা ঋণ পাচ্ছেন না। আলোচনা সভায় উদ্যোক্তাদের ঋণ পেতে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনাকে আরো সহজ করার আহ্বান জানিয়েছেন খাত সংশ্লিষ্টরা।

উদ্যোক্তাদের ৪ শতাংশ সুদে লোন দেওয়ার কথা জানিয়ে প্রাইম ব্যাংকের কর্মকর্তা কায়সার হাসান জানান, আইটি সেক্টরে যারা যুক্ত আছেন বেসিস, বাক্যে, ই-ক্যাব তাদের সাথে গত বছর আমরা বসেছি প্রণোদনার লোন দেওয়ার জন্য। আমরা লোন দিয়েছি। ৪ শতাংশ সুদে লোন দেওয়ার জন্য আমরা প্রাইম ব্যাংকের সঙ্গে চুক্তি করি। যারা আইটি সেক্টরে কাজ করেন তাদের ৪ শতাংশ সুদে লোন দিতে চাই। ৪০ জন উদ্যোক্তা ৪ শতাংশ সুদের লোন পেয়েছে আশা করি আরো বেশি পাবে। 

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প ফাউন্ডেশনের (এসএমইএফ) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো. মফিজুর রহমান বলেন, যারা প্রথমবার প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে লোন পান নাই তাদের দেওয়া হবে এবার। এটি সাধারণ লোন না। করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র প্রান্তিক পর্যায়ের প্রতিষ্ঠানকে এই লোন দেওয়া হবে।

আলোচনায় জানানো হয় আইটি প্রতিষ্ঠানকে এক লক্ষ থেকে সর্বোচ্চ ৭৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ব্যাংক সহজ শর্তে ঋণ দেওয়া হবে। শর্তগুলো হলো, ৪ শতাংশ সুদে ঋণ, সর্বোচ্চ ছয় মাস গ্রেস পিরিয়ড, দুই বছরের মধ্যে লোনটা পরিশোধ করা যাবে এবং মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করা যাবে। 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ই-ক্যাবের অর্থ সম্পাদক মো. আব্দুল হক অনু, এসএমই ফাউন্ডেশনরে ডিজিএম আব্দুল সালামসহ অন্যান্য ব্যাংকের কর্মকর্তারা।